Jun 20, 2007

আঞ্চলিক সংবাদ




অবচেতনের জলশাড়িতে জ্যোৎস্নাজরি নকশা,
সে মেয়েটির দুচোখ ভরা স্বপ্ন-আশা-ভরসা।

অন্তরের শ্রাবণী-জলসায় বাজে বৃষ্টিনুপুর,
চকিত'খেয়ালী হাসি ঝরায় সহস্র কোহিনুর।

নষ্টপুরনো ছেঁড়াকাগজের কাহিনীর উন্মেষ,
অতীত'দহনে অস্তিত্বের বেদনাধূসর রেশ।

বিবেকবিহীন হীন'নীচতায় বিক্রীত সম্মান,
"আরো চাই''-প্রতিযোগীতায় অঝোর-শোণিতস্নান।

মুল্যবোধের ধ্বংস'শমনে জবাবী দস্তখত,
নৈরাশ্যের অতল গহনে নিহিত ভবিষ্যত।

শিকারের খোঁজে নরপিশাচের শ্বাপদ-পদধ্বনি,
গলিত-হিংস্র বাসনা মনের; বিকৃত অগ্রণী।

অব্যক্ত যন্ত্রণার মাঝে পরাজিত প্রতিঘাত,
একলা মেয়ের নিথর শরীরে নিশ্চুপ হিমপাত।

আঞ্চলিক শেষ-সংবাদে শোকস্তব্ধ প্রহর,
আপনজনের নিরুপায়-ক্রোধে ব্যথার শীলমোহর।

গতানুগতিক রোজের খবরে মৃত্যুর সংকেত,
স্থিতিস্থাপক অতিবর্ত্তনে উষর জীবনক্ষেত।

পিছুডাক ছিল (শাসনের রাশ), "জলদি বাড়ি আসিস'',
আসেনি সে ফিরে,লাঞ্ছিতা-লাশ;ধানক্ষেতে বেওয়ারিশ।

ঘরে'সমাজে প্রতিদিন-যাপনা, তবুও ছলচাতুরী;
দিনপঞ্জীতে স্মৃতিরোদকণা আজও খেলে লুকোচুরি।

2 comments:

Md. said...

খুব ভাল লাগলো এই কবিতা টা।
ধন্যবাদ।

মধুশ্রী said...

md.
কবিতাটি ভালো লেগেছে জেনে, খুব খুশি হলুম। আপনাকেও আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।